সহজ উপায়ে পেয়ে যান ধবেধবে সাদা দাঁত

ধবে ধবে সাদা দাঁত কার না পছন্দ বলুন? কিন্তু অনেকে সময় বিভিন্ন কারণে দাঁত হলুদ হয়ে যায় বা হলদেটে হলদেটে দাগ পড়ে যায়। প্রতিদিন নিয়ম করে দাঁত ব্রাশ করার পরেও হলেদে দাগ দূর হয় না। দাঁত হলুদ হওয়ার কারণ সম্পর্কে .

ধবে ধবে সাদা দাঁত কার না পছন্দ বলুন? কিন্তু অনেকে সময় বিভিন্ন কারণে দাঁত হলুদ হয়ে যায় বা হলদেটে হলদেটে দাগ পড়ে যায়। প্রতিদিন নিয়ম করে দাঁত ব্রাশ করার পরেও হলেদে দাগ দূর হয় না। দাঁত হলুদ হওয়ার কারণ সম্পর্কে কিছু কারণ উল্লেখ করা হলো-

দাঁতে হলুদ ছোপ হবার কারণ:

  • -ধূমপান করা
  • -বয়সে হয়ে গেলে, অনিয়মিত দাঁত ব্রাশ করা
  • -বংশগতভাবে
  • -কোন অসুখ থাকলে
  • -অতিরিক্ত চা-কফি পান করা
  • -প্রচুর চকলেট, ডার্ক চকলেট চিনিযুক্ত খাবার খাওয়া
  • -কালো চা পান করা। কোলা, সোডা পান করা।


হলুদ দাঁত সাদা করার অনেকগুলো ঘরোয়া উপায় আছে। এই উপায়গুলোর মধ্যে অন্যতম এবং কার্যকরী উপায় হল বেকিং সোডা এবং লেবুর রসের ব্যবহার। চটজলদি দাঁত সাদা করতে এতই খুব ভালো উপায়। তবে এই পদ্ধতি ঘনঘন ব্যবহার করতে দাঁতের ক্ষতি হতে পারে।


যা যা লাগবে:
-৩০ গ্রাম বা ২/৩ চা চামচ বেকিং সোডা
-১টি লেবুর রস


যেভাবে তৈরি করবেন:

  • -প্রথমে বেকিং সোডার সাথে লেবুর রস মিশিয়ে নিন।
  • -বেকিং সোডা এবং লেবু রস মিশালে দেখবেন অনেকটা ফোমের মত হয়ে গেছে।
  • -কিছুক্ষণ অপেক্ষা করুন।
  • -একটি তুলার বল বা টুথব্রাশে বেকিং সোডার মিশ্রণটি লাগান।
  • -এবার এটি দাঁতে ঘষুন।
  • -এভাবে এক মিনিটের জন্য রেখে দিন।
  • -তারপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।
  • -আপনি চাইলে লেবুর রসের পরিবর্তে পানি ব্যবহার করতে পারেন। পানি ব্যবহার করলে ২-৩ মিনিট পর্যন্ত এটি দাঁতে রাখতে পারবেন।
  • -এটি করার পর দাঁত ব্রাশ করবেন না। দাঁত ব্রাশ করার কমপক্ষে দুই ঘন্টার আগে এটি ব্যবহর করুন।
  • -খুব বেশি সময় এটি মুখে রাখলে দাঁত ক্ষয় হয়ে ভেঙ্গে যেতে পারে। তাই ১ মিনিটের বেশি সময় না রাখা আপনার দাঁতের জন্য ভাল।


সতর্কতা:
বেকিং সোডা এবং লেবুর রস ব্যবহারে কিছু সতর্কতার কথা বলেছে colgate.com। বেকিং সোডা এবং লেবুর রসের পেস্ট অতিরিক্ত ব্যবহারে দাঁত ক্ষয় হয়ে যেতে পারে। এবং এতে করে দাঁত ভেঙ্গে যাওয়ার মত সমস্যাও দেখা দিতে পারে। তাই অতিরিক্ত ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকুন।

বেকিং সোডাতে ফ্লোরাইড নেই, যা দাঁত মজবুত করে থাকে। তাই এই পেষ্ট ব্যবহার করার পাশাপাশি আপনাকে নিয়মিত দাঁত ব্রাশ করতে হবে। আর হ্যাঁ আপনি যদি দাঁতে ব্রেসলেট বা দাঁত বন্ধনী ব্যবহার করে থাকেন, তবে এই পেস্ট ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকুন। এটি দাঁত বন্ধনীর আঠা নরম করে দিবে।

তথ্য- www.priyo.com

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *